চিরকুমার সভা/Chirokumar Sabha/ Society for the eternally unmarried

নৃপ তাহাকে টানিয়া লইয়া চলিল

(চলিতে চলিতে) এলে খবর দিয়ো মুখুজ্জেমশায়, ফাঁকি দিয়ো না। দেখছ তো সেজদিদি কিরকম চঞ্চল হয়ে উঠেছে।–

গান

না ব’লে যায় পাছে সে

আঁখি মোর ঘুম না জানে।

অক্ষয়।

ভয় নেই, ভয় নেই। একটা যায় তো আর-একটা আসবে। যে বিধাতা আগুন সৃষ্টি করেছেন পতঙ্গও তিনিই জুটিয়ে দেবেন। এখন গানটা চলুক।

নীরবালা।

কাছে তার রই, তবুও

ব্যথা যে রয় পরানে।

অক্ষয়।

নীরু, এটা তো আগন্তুকদের লক্ষ্য করে তৈরি হয় নি। কাছের মানুষটি কে বলো তো।

নীরবালা।

যে পথিক পথের ভুলে

এল মোর প্রাণের কূলে

পাছে তার ভুল ভেঙে যায়

চলে যায় কোন্‌ উজানে,

আঁখি মোর ঘুম না জানে।

অক্ষয়।

এ তো আমার সঙ্গে মিলছে। কিন্তু ভাই, জেনেশুনেই পথ ভুলেছি, সুতরাং সে ভুল ভাঙবার রাস্তা রাখি নি।

নীরবালা।

এল যেই এল আমার আগল টুটে,

খোলা দ্বার দিয়ে আবার যাবে ছুটে।

খেয়ালের হাওয়া লেগে

যে খেপা ওঠে জেগে

সে কি আর সেই অবেলায়

মিনতির বাধা মানে।

আঁখি মোর ঘুম না জানে।

অক্ষয়।

গান

না, না গো, না

কোরো না ভাবনা–

যদি বা নিশি যায় যাব না, যাব না।

যখনি চলে যাই

আসিব বলে যাই,

আলো ছায়ার পথে করি আনাগোনা।

দোলাতে দোলে মন মিলনে বিরহে।

বারে বারেই জানি তুমি তো চির হে।

ক্ষণিক আড়ালে

বারেক দাঁড়ালে

মরি ভয়ে ভয়ে পাব কি পাব না।

নীরবালা।

বড়ো নিশ্চিন্ত হলুম। তা হলে ঘুমোতে পারি।

অক্ষয়।

নির্ভয়ে।

[ নৃপবালা ও নীরবালার প্রস্থান

শৈলবালা।

মুখুজ্জেমশায়, আমি ঠাট্টা করছি নে– আমি চিরকুমার-সভার সভ্য হব। কিন্তু আমার সঙ্গে পরিচিত একজন কাউকে চাই তো। তোমার বুঝি আর সভ্য হবার জো নেই?

অক্ষয়।

না, আমি পাপ করেছি। তোমার দিদি আমার তপস্যা ভঙ্গ করে আমাকে স্বর্গ হতে বঞ্চিত করেছেন।

শৈলবালা।

তা হলে রসিকদাদাকে ধরতে হচ্ছে। তিনি তো কোনো সভার সভ্য না হয়েও চিরকুমার-ব্রত রক্ষা করেছেন।

অক্ষয়।

সভ্য হলেই এই বুড়োবয়সে ব্রতটি খোয়াবেন। ইলিশমাছ অমনি দিব্যি থাকে, ধরলেই মারা যায়; প্রতিজ্ঞাও ঠিক তাই, তাকে বাঁধলেই তার সর্বনাশ।

রসিকের প্রবেশ

রসিকদাদার সম্মুখের মাথায় টাক, গোঁফ পাকা, গৌরবর্ণ, দীর্ঘাকৃতি

অক্ষয়।

ওরে পাষণ্ড, ভণ্ড, অকালকুষ্মাণ্ড।

রসিক।

কেন হে মত্তমন্থর কুঞ্জকুঞ্জর পুঞ্জঅঞ্জনবর্ণ।

অক্ষয়।

তুমি আমার শ্যালী-পুষ্পবনে দাবানল আনতে চাও?

শৈলবালা।

রসিকদাদা, তোমারই বা তাতে কী লাভ।

রসিক।

ভাই, সইতে পারলুম না, কী করি। বছরে বছরেই তোর বোনদের বয়স বাড়ছে, বড়োমা আমারই দোষ দেন কেন। বলেন, দুবেলা বসে বসে কেবল খাচ্ছ, মেয়েদের জন্যে দুটো বর দেখে দিতে পার না। আচ্ছা ভাই, আমি না খেতে রাজি আছি, তা হলেই বর জুটবে, না তোর বোনদের বয়স কমতে থাকবে? এ দিকে যে-দুটির বর জুটছে না তাঁরা তো দিব্যি খাচ্ছেন দাচ্ছেন। শৈলভাই, কুমারসম্ভবে পড়েছিস, মনে আছে তো?–

স্বয়ং বিশীর্ণদ্রুমপর্ণবৃত্তিতা

পরা হি কাষ্ঠা তপসস্তয়া পুনঃ।

তদপ্যপাকীর্ণমতঃ প্রিয়ংবদাং

বদন্ত্যপর্ণেতি চ তাং পুরাবিদঃ।

তা ভাই, দুর্গা নিজের বর খুঁজতে খাওয়া-দাওয়া ছেড়ে তপস্যা করেছিলেন; কিন্তু নাতনীদের বর জুটছে না বলে আমি বুড়োমানুষ খাওয়া-দাওয়া ছেড়ে দেব, বড়োমার এ কী বিচার। আহা শৈল, ওটা মনে আছে তো? তদপ্যপাকীর্ণমতঃ প্রিয়ংবদাং–

শৈলবালা।

মনে আছে দাদা, কিন্তু কালিদাস এখন ভালো লাগছে না।

রসিক।

তা হলে তো অত্যন্ত দুঃসময় বলতে হবে।

****

Nreepo pulled her away.

(As she went) Please let us know when they arrive, Mr. Mukhujje! Do not trick us! See how agitated my sister is.

Song:

For fear that he should go without telling me

My eyes know no rest.

Akshay: Do not fear, do not fear. If one goes, another is sure to follow. The same creator who has made fire will surely supply moths in plentiful sacrifice. Let us now hear the song.

Neerobala:

I cling to him and yet

My heart still hurts.

Akshay: Neeru, this is certainly not sung with our guests in mind. Who is this man you feel so close to, may one ask?

Neerobala:

The traveller who loses his way

And ends up in my heart.

For fear that he should discover his error

And leaves on some unknown tide

My eyes know no rest.

Akshay: This sounds just like me. But I made my errors knowingly, and there is little way of fixing that.

Neerobala:

He comes breaking all my walls,

He will leave through the open door

His whims blow him

Like a madman awoken

Will he listen to reason

Or request in that untimely hour.

My eyes know no rest.

Akshay sings:

No, No, No, No

Do not worry yourself

Even if the night fades, I will not go, no!

Whenever I leave

I always promise to return by and by

Stepping lightly on shaded paths

My mind sways between happiness and pain

Each time I know, that you are everlasting

Beyond the shadows

You come and stand a while

I could simply die of fear, what if I do not have you?

Neerobala: I am greatly reassured. I will be able to sleep now.

Akshay: Without fear.

[Nripobala and Neerobala exit]

Shailabala: Mr Mukhujje, I am not jesting – I want to be a member of the Eternally unmarried Club. But I want a friend there with me. Can you not join again?

Akshay: No, I have transgressed. Your sister broke my pledge and deprived me of heaven.

Shailabala: Then we must get Rashikdada. He has maintained a pledge of everlasting bachelorhood despite not being affiliated to any club.

Akshay: He will forfeit his pledge at this ripe old age the very moment he joins. Just as hilsa fish are best when free, but catch them and they die straight away; pledges are just like that, try to formalize them and they are bound to fail.

Rashik enters; he is balding, fair and tall with a white moustache.

Akshay: Oh you stony hearted fake! You precocious pumpkin!

Rashik: Why say such things?

কেন হে মত্তমন্থর কুঞ্জকুঞ্জর পুঞ্জঅঞ্জনবর্ণ।

Akshay: Do you want to set fire to the flower gardens where my sister-in-laws kive?

Shailabala: Of what benefit is that to you Rashikdada?

Rashik: Sister, I could not bear it, what can I do. Your sisters grow older each year, but why does aunt blame me? She says I just exist to fill my belly with two square meals a day, why can’t I find them a pair of husbands. Tell me, I can give up my food but will that find them the needed husbands or help them shed the years? The ones who do not have husbands are happily eating their fill! Shaila, do you remember what you read in the Kumarshambhava?

স্বয়ং বিশীর্ণদ্রুমপর্ণবৃত্তিতা

পরা হি কাষ্ঠা তপসস্তয়া পুনঃ।

তদপ্যপাকীর্ণমতঃ প্রিয়ংবদাং

বদন্ত্যপর্ণেতি চ তাং পুরাবিদঃ।

Well brother, Durga gave up food and drink and meditated to find a husband for herself; but what kind of justice is it to deprive an old man like me of his food because my granddaughters cannot be married off? Shaila, you must remember this?

তদপ্যপাকীর্ণমতঃ প্রিয়ংবদাং–

Shailabala: I remember, but Kalidasa is not what I need at this moment.

Rashik: Then these are the worst of times indeed.

To read Part One:

https://animikha.wordpress.com/2015/04/30/%E0%A6%9A%E0%A6%BF%E0%A6%B0%E0%A6%95%E0%A7%81%E0%A6%AE%E0%A6%BE%E0%A6%B0-%E0%A6%B8%E0%A6%AD%E0%A6%BE-chirokumar-sabhasociety-for-the-eternally-unmarried/

One thought on “চিরকুমার সভা/Chirokumar Sabha/ Society for the eternally unmarried

Comments are closed.