শেষ সপ্তক, এক / Shesh Shawptok, Ek/ The final Collection, One

এক

 

স্থির জেনেছিলেম, পেয়েছি তোমাকে,

মনেও হয়নি

তোমার দানের মূল্য যাচাই করার কথা।

তুমিও মূল্য করনি দাবি।

দিনের পর দিন গেল, রাতের পর রাত,

দিলে ডালি উজাড় ক’রে।

আড়চোখে চেয়ে

আনমনে নিলেম তা ভাণ্ডারে;

পরদিনে মনে রইল না।

নববসন্তের মাধবী

যোগ দিয়েছিল তোমার দানের সঙ্গে,

শরতের পূর্ণিমা দিয়েছিল তারে স্পর্শ।

তোমার কালো চুলের বন্যায়

আমার দুই পা ঢেকে দিয়ে বলেছিলে

“তোমাকে যা দিই

তোমার রাজকর তার চেয়ে অনেক বেশি;

আরো দেওয়া হল না

আরো যে আমার নেই।”

বলতে বলতে তোমার চোখ এল ছলছলিয়ে।

আজ তুমি গেছ চলে,

দিনের পর দিন আসে, রাতের পর রাত,

তুমি আস না।

এতদিন পরে ভাণ্ডার খুলে

দেখছি তোমার রত্নমালা,

নিয়েছি তুলে বুকে।

যে গর্ব আমার ছিল উদাসীন

সে নুয়ে পড়েছে সেই মাটিতে

যেখানে তোমার দুটি পায়ের চিহ্ন আছে আঁকা।

তোমার প্রেমের দাম দেওয়া হল বেদনায়,

হারিয়ে তাই পেলেম তোমায় পূর্ণ ক’রে।

 

শান্তিনিকেতন, ১ অগ্রহায়ণ, ১৩৩৯

 

***

One

 I knew with certainty that you were mine,

 I never thought

Of measuring the worth of what you gave

You had never asked to be paid in kind.

Day after day passed and night followed night,

 You gave till you could give no more.

 I gave it but a glance

Taking even that for my hoard;

No memory remained the following day.

 The blossoms of spring

 Joined you in offering themselves,

 And the moonlight of autumn gilded it with its touch.

Your black hair cascading down

Over my feet you spread them and said

“What I give you

Your demands are far greater;

I could not give you more

For I have nothing left.”

As you spoke, your eyes filled with unspilled tears.

Today you are no more,

Day follows day and night follows night,

 But you return no more.

 After all this time I look to my stores

At your jewelled bonds

Raising them to my breast.

The neglectful pride that was once my bane

 Now bends to the very ground

Where your feet once stepped.

 I paid for your love with my pain,

 And so I finally find you, now that you are gone.

Santiniketan, 1st Agrahayan 1339